0 0 lang="en-US"> আয়কর বিবরণী নিয়ে ট্রাম্প সাহেব কেন এতো ভীত? - ভাষান্তর
ভাষান্তর

আয়কর বিবরণী নিয়ে ট্রাম্প সাহেব কেন এতো ভীত?

Read Time:5 Minute, 21 Second

ডেভিড লিওন হার্টড, নিউ ইয়র্ক টাইমস:
ডেমক্র্যাট সাংসদরা হয়তো ট্রাম্পকে তার আয়কর রিটার্ন প্রকাশ করার জন্যে জোর প্রয়োগ করতে পারবেন না। তবে তারা যেটা করতে পারবেন, তা হলো তারা মার্কিন জনগণকে সবসময় মনে করিয়ে দিতে পারবেন যে ট্রাম্প আসলেই তার আয়কর রিটার্নগুলোতে কী আছে, সেটা জনগণকে জানাতে চান না।

যেহেতু আপনি খুব সম্ভব এতক্ষণে জেনে গেছেন যে সাম্প্রতিক কালের সকল প্রেসিডেন্ট (এবং প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীরা) স্বেচ্ছায় তাদের আয়কর রিটার্ন প্রকাশ করেছেন। কিন্তু ট্রাম্প তা করেন নি। এখন ডেমক্র্যাট সাংসদরা এসকল তথ্য জানার চেষ্টা করছেন এবং সম্ভবত কিছু কিছু অংশ জনসম্মুখে প্রকাশ করারও চেষ্টা করছেন।

গত সপ্তাহে ম্যাসাচুসেটসের ডেমক্যাট নেতা ও দ্য হাউজ ওয়েজ অ্যান্ড মিনস কমিটির চেয়ার‌ম্যান  রিচার্ড নিল ১৯২৪ সালের ট্যাক্স কোডের বিধানের বরাত দিয়ে ট্রাম্পের ছয় বছরের আয়কর রিটার্ন দেখার দাবি জানিয়েছেন, ট্যাক্স কোড অনুসারে কংগ্রেস যে কোন নাগরিকের আয়কর রিটার্ন পেতে পারে। নিল ইন্টার্নাল রেভিন্যু সার্ভিসকে আয়কর রিটার্ন হস্তান্তর করতে বলেছেন।

ট্রাম্প বারবার বলছেন যে তিনি তার আয়কর রিটার্ন জনগণের সামনে প্রকাশ করতে পারলে খুশি হতেন, কিন্তু স্পষ্টতই এটা মিথ্যা কথা। তার অজুহাতগুলোর একটা হলো আই.আর.এস তাকে অডিট করছে, এমন মিথ্যা দাবি। এবং তার দাবি যে সত্য, সপ্তাহান্তে ট্রাম্প প্রশাসন এমন ভাণ ধরাও বন্ধ করেছে। গতকাল (৭ এপ্রিল) হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মিক মুলভানি ফক্স নিউজকে বলেন, ডেমক্র্যাটরা “কখনোই” এগুলো দেখতে পাবে না, তিনি আরো বলেন “এবং তাদের দেখা উচিতও না”। ট্রাম্পের আইনজীবী বলেন, এই অনুরোধের বিপক্ষে তারা লড়াই চালিয়ে যাবেন।

জনগণকে আয়কর রিটার্ন দেখাতে ট্রাম্প এতো ভয় পাচ্ছেন কেন?

তুলনামূলক সবচেয়ে নিরীহ কারণ হতে পারে, তিনি হয়তো যতটা দম্ভ করেন, আসলে ততটা ধনী নন, এবং তিনি সত্য প্রকাশ করতে বিব্রত হচ্ছেন। আর আরেকটু কম নিরীহ কারণ হতে পারে এই যে, তার হয়তো এমন কোন অর্থনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে, যেগুলো প্রকাশ হলে রাজনৈতিক সমস্যায় পড়তে পারেন উদাহরণস্বরূপ রাশিয়া বা এমন কোন দেশের সাথে সম্পর্ক, মার্কিন পররাষ্ট্র নীতি অনুযায়ী যেসকল দেশের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সন্দেহজনক।

আয়কর রিটার্ন প্রকাশ করলে সেটা “মার্কিন নাগরিকদের জানাবে যে মার্কিন করদাতাদের খরচে প্রেসিডেন্ট নিজের ব্যবসায়ের স্বার্থে কোন সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন কি না” দ্য গভর্নমেন্ট ওয়াচডগ গ্রুপ সমূহের একটি, কমন কজর আরন শের্ব ইউএসএ টুডেতে আজ (৮ এপ্রিল) লিখেছেন। তিনি আরো লিখেন, “যদি বিভিন্ন দেশের ব্যাংকসমূহ এবং/অথবা ব্যক্তিগত পর্যায়ে কারো নিকট তার উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ঋণ থাকে, তার মধ্যে কিছু হয়তো যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থবিরোধী হতে পারে, আমরা অবশ্যই জানি, কারণ তার পররাষ্ট্রনৈতিক সিদ্ধান্ত অনেক সময় আপোসমূলক হয়ে থাকে হয়তো।”

প্রেসিডেন্টের আয়কর রিটার্ন দেখাটা কোন কৌতুহলী গুজব কিংবা নিছক দলীয় রাজনীতির বিষয় নয়। এটা জাতীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়। তাই যতক্ষণ পর্যন্ত ট্রাম্প এটা প্রকাশ করা থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করবেন, ডেমক্যাটদের উচিত ততক্ষণ পর্যন্ত এ বিষয়ে কথা চালিয়ে যাওয়া।

________________________________

নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত মূল নিবন্ধের শিরোনাম “What Is He So Afraid of?নিবন্ধটির প্রথম অংশটির তরজমা এখানে দেওয়া হলো। পুরো নিবন্ধ পড়তে চাইলে ইংরেজি শিরোনামের উপর ক্লিক করুন। ছবি নিউ ইয়র্ক টাইমস থেকে সংগৃহীত।

Happy
0 0 %
Sad
0 0 %
Excited
0 0 %
Sleepy
0 0 %
Angry
0 0 %
Surprise
0 0 %
Exit mobile version