Wednesday, September 22, 2021
0 0
Homeমধ্যপ্রাচ্যফেরাউনের সাথে পশ্চিমা বিশ্বের বন্ধুত্ব!

ফেরাউনের সাথে পশ্চিমা বিশ্বের বন্ধুত্ব!

Read Time:6 Minute, 52 Second

বারাক বারফি, প্রজেক্ট সিন্ডিকেট:
গত মাসে মিসরের সংসদে সংবিধান সংশোধনের একটি খসড়া সিংহভাগ সংসদ সদস্যের অনুমোদন পেয়েছে, যাতে প্রেসিডেন্ট আবদুল ফাত্তাহ আল-সিসির ২০৩৪ সাল অবধি ক্ষমতায় থাকার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। পশ্চিমা বিশ্বও এই সংশোধনীর পক্ষে, কারণ এতে মিসরে এক ধরনের স্থিতিশীল পরিবেশ বজায় থাকবে, আর তাদের মহালাভজনক অস্ত্রের বাজারও থাকবে ঠিকটাক মতো।
সংশোধনটি অনুমোদন করেছেন ৫৯৬ জন সাংসদের মধ্যে ৪৮৫ জন। এতে প্রেসিডেন্টের মেয়াদ ৪ বছর থেকে ছয় বছর করা হয়েছে, আর সিসিকে অতিরিক্ত আরো দুই বার নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য সিসির বর্তমান মেয়াদ শেষ হবে ২০২২ সালে। এখন এ খসড়া সংশোধন বাস্তবায়নের জন্য সিদ্ধান্তটিকে গণভোট দ্বারা অনুমোদিত করতে হবে।
সিসি যে প্রেসিডেন্ট পদে থেকে যেতে চাচ্ছেন, তা মোটেও বিস্ময়কর কিছু নয়। ক্ষমতা নিশ্চিত করার স্বার্থে ক্ষমতা গ্রহণের সময় তিনি কিছুটা নমনীয়তা দেখিয়েছিলেন। ২০১৩ সালে একটি সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেছিলেন তিনি “কর্তৃত্বের জন্য উচ্চাকাঙ্ক্ষী” নন। তিনি শপথ করেছিলেন, “আমি সংবিধানে কোন সংশোধন আনতে যাবো না। … আইন ও সংবিধান অনুমোদিত সময়সীমার পর কেউই প্রেসিডেন্টের আসনে থাকবে না।” ঠিক যেমনিভাবে সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসনি মোবারক ১৯৮১ সালে সংসদে তার প্রথম ভাষণে বলেছিলেন, “খোদাই জানেন, আমি কখনোই এই কাজের স্বপ্ন দেখি নি।” অবশেষে ৩০ বছর ২০১১ সালের আরব বসন্তে তিনি তার অবস্থান থেকে অপসারিত হয়েছিলেন!
ফেরাউনদের রাজ্যে রাষ্ট্রপতিরা সাধারণত বিভিন্ন পৌরাাণিক কাহিনী দ্বারা এতোটাই বিমোহিত হন, যে তারা শাসন করার ব্যাপারে তাদের দীর্ঘ মেয়াদী, সদানির্ভুল (তাদের কল্পনায়), এমনকি প্রায় ঐশ্বরিক অধিকারের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, হোসনি মোবারক ২০০৩ সালের মধ্যভাগে তার এই মনোভাব দেখিয়েছিলেন। যখন তাকে একজন লেখক প্রশ্ন করেছিলেন, মার্কিন নেতৃত্বাধীন আক্রমষ ঠেকানোর জন্য সৌদি আরব ইরাকি স্বৈর শাসক সাদ্দাম হোসনের পদত্যাগ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করছে কি না, তখন তিনি বলেছিলেন “অসম্ভব!” মোবারক সেদিন ঘোষণা দিয়েছিলেন, “কোন রাষ্ট্রপতি পদত্যাগ করতে পারে না!”
ঠিক একইভাবে সিসির ফাঁস হওয়া এক অদ্ভুত রেকর্ডিংএ তিনি ঘোষণা করেন যে স্বপ্নে প্রেসিডেন্ট আনোয়ার সাদাত তাকে জানিয়েছেন যে তিনি প্রেসিডেন্ট হবেন। অন্য আরেকটি স্বপ্নতে তিনি একটি ধ্বনি শুনতে পান, যেটি তাকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো, “আমরা তোমাকে এমন কিছু দান করবো, যা আমরা কাউকেই দান করি নি।”
পশ্চিমারা হয়তো এসব দাবিকে উপহাস করবেন, কিন্তু মিসরিরা এগুলোকে বেশ গুরুত্বের সাথে নেয়। (আসলেই? আমার তো মনে হয় ভাড়াটে ভাড়রাই কেবল গুরুত্বের সাথে নেয়, এবং সেটাই ফলাও করে প্রচার করা হয়!-অনুবাদক।) ইহুদি ও ইসলামি মতবাদে স্বপ্নকে নবুওতের নিম্নস্তর বলে বিবেচনা করা হয়। (সত্য বটে ইসলামে এরকম কথা আছে, তবে সেটা এতো সাদামাটা নয়, যেভাবে লেখক বলছেন।অনুবাদক) বাইবেলের আদিপুস্তকে আছে, ইউসুফ আ. ফারাওর স্বপ্নের সঠিক ব্যাখ্যা করে মিসরকে খরা ও দুর্ভিক্ষ থেকে রক্ষা করেছিলেন। (কুরআন শরিফেও এই ঘটনা আছে। কিন্তু ইহুদি কিংবা মোসলমান কারো নিকটই নবি কর্তৃক স্বপ্নের ব্যাখ্যা আর সিসির দাবিকৃত স্বপ্ন সমান গুরুত্ববহ হওয়ার কথা নয়।অনুবাদক)
তবে সিসির ঘোষণা দেওয়ার সময়টা স্বপ্ন দ্বারা নির্ধারিত নয়, বরং রাজনৈতিক পরিস্থিতি অনুসারেই নির্ধারণ করা হয়েছিল। ২০১১ সালের বিদ্রোহ পরবর্তী আর্থসামাজিক অস্থিতিশীলতা অবশেষে হ্রাস পেয়েছে। অনেক বছর পর জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সামঞ্জস্য রেখে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে (যদি এটিই সবকিছু হয়ে থাকে।) গত জুনে শেষ হওয়া অর্থ বছরে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার ছিল ৫.৩%।
তাছাড়া আইএমএফ ঘোষিত কঠোর মিতব্যয়িতা কর্মসূচি এনার্জি ও খাদ্যখাতে ভর্তুকি কমানোর কর্মসূচি, এমনকি যদি আয় কমে যায় তাহলেও চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌছাচ্ছে। অর্থনীতিতে স্বস্তি ফিরে আসার ফলে অর্থনৈতিক আন্দোলনও হ্রাস পাচ্ছে। ইতোমধ্যে শ্রমিক ও ছাত্র আন্দোলন নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনীর কঠোরতা এবং আন্দোলনের প্রতি সমাজের অন্যান্য অংশের সমর্থনের অভাবের কারণে এটি সম্ভব হয়েছে। যদিও মিসরের ক্ষমতা কাঠামো পুরোপুরি স্বচ্ছ নয়, তবে সামরিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর কোন ধরনের অভিযোগহীনতা থেকে মনে হয় যে পর্দার আড়ালে সিসি ঠিকই তার অবস্থান শক্তিশালী করছেন।
________________________________

Happy

Happy

0 %


Sad

Sad

0 %


Excited

Excited

0 %


Sleepy

Sleepy

0 %


Angry

Angry

0 %


Surprise

Surprise

0 %

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments